নীলফামারীতে চাড়ালকাটা নদী ভাঙ্গনে স্বর্বহারা মানুষ

255

রয়েল নিউজ, নীলফামারী প্রতিনিধি :
নীলফামারী জেলার মধ্য দিয়ে বয়ে যাওয়া দেওনাই-চাড়ালকাটা-যমুনেরী নদী খননের ফলে পানি প্রবাহ বেড়ে যাওয়ায় বেড়াডাঙ্গা, হরিশচন্দ্রপাট, বামনাবামনিসহ ১৫টি পয়েন্টে দেখা দিয়েছে ভয়াবহ ভাঙ্গন। ভাঙ্গনের হুমকিতে আছে একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নির্মাণাধীন চারতলা ভবনসহ দুইশ’টি পরিবার। ইতোমধ্যে ১৫টি পরিবারের বসতভিটা, ঘরবাড়ি আর ফসলী জমি নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। ফলে তারা আশ্রয় নিয়েছে অন্যের জমিতে। সর্বস্বহারা এসব পরিবার দুর্বিসহ জীবন যাপন করছে।

স্মরনকালের ভারী বর্ষন আর উজানের ঢলে দেওনাই-চাড়ালকাটা-যমুনেশ্বরী, বুড়িখোড়া, বুড়িতিস্তাসহ নীলফামারী জেলার মধ্য দিয়ে বয়ে যাওয়া ১৯টি নদ-নদীর প্রবাহ বেড়ে যায়। ভাঙ্গন কবলিত এক দশমিক দুই কিলোমিটার এলাকায় জরুরী প্রতিরক্ষামুলক ব্যবস্থা নিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ।

নদী খননের ফলে পানি প্রবাহ বেড়ে যাওয়ায় বিভিন্ন পয়েন্টে দেখা দিয়েছে ভয়াবহ ভাঙ্গন। তবে ভাঙ্গনরোধে জরুরী প্রতিরক্ষামুলক ব্যবস্থা নেয়ার কথা বললেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রকৌশলী মো: আব্দুল্লাহ আল মামুন।

অবিলম্বে বাঁধ নির্মাণসহ এলাকাবাসীকে রক্ষায় দ্রুত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের দাবী স্থানীয়দের।

Previous article‌দক্ষিন কাফরুল মডেল হাইস্কুলের সহকারী শিক্ষিকাকে ধর্ষণ
Next articleবন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলায় দলীয় নেতাকর্মীদের কাজ করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর